লিনাক্সের সাথে পথচলা সাত বছর ধরে, সেই ২০১১ সাল থেকে। শুরুটা করেছিলাম ওপেনসুসে দিয়ে। আমার জীবনের প্রথম কম্পিউটার (ল্যাপটপ) HP Compaq-420’র সাথে ওপেনসুসের একটি ডিস্ক ফ্রীতে দিয়েছিল। সেটা সেটাপ দিয়েই লিনাক্সের সাথে পথচলা শুরু করেছিলাম। আর উবুন্টুর সাথে সম্পর্ক ছয় বছর ধরে, ২০১২ সাল থেকে। মাঝে অবশ্য বিভিন্ন ওএসে শিফট করেছিলাম। তবে বারবার ফিরে এসেছি উবুন্টুর কাছেই। বর্তমানে আমি উবুন্টু (Ubuntu) ১৮.০৪ এলটিএস (৬৪-বিট) ভার্সন ব্যবহার করছি। আজকে আমার প্রিয় গ্নোম এক্সটেনশন ও উবুন্টু অ্যাপগুলো আপনাদের সামনে তুলে ধরব, কিভাবে ইন্সটল করবেন তাও বলে দেব ইনশাআল্লাহ।

পুরো পোস্ট পড়ুন

সত্য বলব না

বিশ্বাস কর মা, আমি আর কোনদিন সত্য বলব না। খায়গো বাড়ির নৌউস্যা, রক্ত জবার বাগানে, সলিমুদ্দির ছোট মেয়েটাকে রক্তাক্ত করে ফেলে; রক্ত জবা, রক্তাক্ত জবা সবকিছু একাকার হয়ে যায়, অথচ জবার চিৎকার, কারো কানেও পৌঁছায় না। আমিন মাতব্বরের সালিশে, সলিমুদ্দির কন্ঠ চাপা পড়ে যায়, শত শত হায়েনার হুংকারে; আমি ছাড়া আর কেউ, একটি কথাও বলেনি মাগো, একটি কথাও নাকো, ওরা আমাকেও স্তব্ধ করে দিয়েছে তাই। বিশ্বাস কর মা, আমি আর কখনো সত্য বলব না,

পুরো পোস্ট পড়ুন

ইতিমধ্যে আমরা সিঙ্গলি লিংকড লিস্ট ও সার্কুলার লিংকড লিস্ট সম্পর্কে অল্প-বিস্তর ধারণা লাভ করার চেষ্টা করেছি। তারই ধারাবাহিকতায় এখন ডাবলি লিংকড লিস্ট সম্পর্কে জানব। সিঙ্গলি লিংকড লিস্টের মত ডাবলি লিংকড লিস্টও কতগুলো নোডের চেইন বা সমাহার। কিন্তু পার্থক্য হল নোডের ফিল্ড সংখ্যায়। সিঙ্গলি লিংকড লিস্টে প্রতিটি নোডে দুটি ফিল্ড থাকে। কিন্তু ডাবলি লিংকড লিস্টে প্রতিটি নোডে তিনটি ফিল্ড থাকে। প্রথম ফিল্ডে থাকে প্রিভিয়াস (previous) পয়েন্টার বা পূর্ববর্তী নোডের লিংক (রেফারেন্স), মাঝের ফিল্ডে থাকে ডাটা আইটেম আর শেষের ফিল্ডে থাকে নেক্সট পয়েন্টার বা পরবর্তী নোডের লিংক (রেফারেন্স)। যেহেতু প্রতিটি নোডে দুটি করে পয়েন্টার থাকে, তাই এই নোড চেইনেরও দুটি প্রান্ত থাকে। দুই প্রান্তেই নোড চেইনের পরিসমাপ্তিকে মূলত নাল (Null) রেফারেন্স দ্বারা চিহ্নিত করা হয়। অনেক সময় None দিয়েও পরিসমাপ্তি বুঝানো হয়। পরিসমাপ্তি দ্বারা বুঝানো হচ্ছে যে, এই নোডের পরে আর কোন নোড নেই।

পুরো পোস্ট পড়ুন

সিঙ্গলি লিংকড লিস্ট সম্পর্কে পরিষ্কার ধারণা থাকলে সার্কুলার লিংকড লিস্ট বুঝতে পারাটা একেবারে পানির মত সহজ। তবে ভুলে গেলেও কোন সমস্যা নেই। আমরা এমনিতেই ফ্লাশব্যাকে যাব। সিঙ্গলি লিংকড লিস্ট হল কতগুলো নোডের চেইন বা সমাহার। প্রতিটি নোডে দুটি ফিল্ড থাকে। প্রথম ফিল্ডে থাকে ডাটা আইটেম আর শেষের ফিল্ডে থাকে পয়েন্টার বা পরবর্তী নোডের লিংক বা রেফারেন্স। নোড চেইনের পরিসমাপ্তিকে মূলত নাল (Null) রেফারেন্স দ্বারা চিহ্নিত করা হয়। অনেক সময় None দিয়ে পরিসমাপ্তি বুঝানো হয়। পরিসমাপ্তি দ্বারা বুঝানো হচ্ছে যে এই নোডের পরে আর কোন নোড নেই।

পুরো পোস্ট পড়ুন

একটা দীর্ঘ সময় পর, অভ্রের লিনাক্স সংস্করণের জন্য কিছু একটা করার চেষ্টা করা হল। কয়েক বছর ধরেই সারিম ভাইয়ের এই বিখ্যাত প্রজেক্টটা কেমন জানি থমকে আছে। অনেকে বাধ্য হয়ে প্রভাতে মুভ করেছেন। আর কিছু অভ্রপ্রেমী রয়ে গেছেন সেই অভ্রতেই। কিন্তু এখন দৃশ্যপট একেবারেই ভিন্ন। উবুন্টু-১৬.০৪ রিলিজ হয়েছে মাত্র এক বছর আগেই। আর অভ্রপ্রেমীদের ইন্সটলেশান দুর্দশা কাটাতে কিছু একটা করার দরকারই ছিল। আর মধ্যবর্তী এক ব্যবস্থা হিসাবে আমরা নিয়ে এসেছি অভ্র-২.১ সংস্করণটিকে।

পুরো পোস্ট পড়ুন

ইতিপূর্বের উদাহরণগুলোতে আমরা পাইথনের বিল্ট-ইন ডাটা স্ট্রাকচার - লিস্টের ব্যবহার দেখে এসেছি। লিংকড লিস্টকে আমরা সেই লিস্টের বিশেষায়িত রূপ বলতে পারি। বিশেষায়িত বলার কারণ হচ্ছে, এই লিস্টের ভিতর কিছু বিশেষ ব্যাপার-স্যাপার রয়েছে। মোটামুটি চার টাইপের লিংকড লিস্ট রয়েছে: সিম্পল (Simple) বা সিঙ্গলি (Singly) লিংকড লিস্ট, ডাবলি (Doubly) লিংকড লিস্ট, মাল্টিপ্লাই (Multiply) লিংকড লিস্ট ও সার্কুলার (Circular) লিংকড লিস্ট। আজকে আমরা সিঙ্গলি লিংকড লিস্ট সম্পর্কে জানার চেষ্টা করব। সহজ ভাষায়, সিঙ্গলি লিংকড লিস্ট হল কতগুলো নোডের চেইন বা সমাহার। আরেকটু পুস্তকী ভাষায় বলতে গেলে, সিঙ্গলি লিংকড লিস্ট হল কতগুলো ডাটা এলিমেন্ট বা নোডের ধারাবাহিক সংগ্রহশালা (কালেকশন – collection)। লিনিয়ার সিকুয়েন্স আর কি!

পুরো পোস্ট পড়ুন

গত মে মাসের ৩ তারিখে পিকাবু থেকে ZedBook W টু-ইন-ওয়ান কনভার্টিবল ল্যাপটপ অর্ডার করেছিলাম। প্রায় ৬ দিন পর, ১০ তারিখে সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে ক্যাশ-অন-ডেলিভারি পেয়েছিলাম। প্রায় একমাস হল জিনিসটা ব্যবহার করছি। জিনিসটার বিশেষত্ব হল – এটাকে ল্যাপটপ হিসেবে ব্যবহার করার পাশাপাশি ট্যাবলেট পিসি হিসেবেও ব্যবহার করা যায়। ইন্টারেস্টেড অনেকেই রিভিউ চেয়েছিলেন, সেই চাওয়া থেকেই এই রিভিউয়ের সূত্রপাত। (১) প্রসেসর: এতে ব্যবহৃত হয়েছে ইন্টেলের ১.৩৩ গিগাহার্জ ক্লকরেটের কোয়াডকোর প্রসেসর Z3735F। ২ মেগাবাইট L3 ক্যাশে রয়েছে, হাইপারথ্রেডিং ও ওভারক্লকিং নেই। টার্বো (Turbo) মোডে ক্লকরেট ১.

পুরো পোস্ট পড়ুন

Author's picture

মাকসুদুর রহমান মাটিন

ডেভঅপস ইঞ্জিনিয়ার | এসআরই

গ্রামীণ টেলিকম ট্রাস্ট

বাংলাদেশ